চাপ নিও না বন্ধু আমার
ছাপটি রেখো মনে,
তোমার আমার দেখা হবে
অন্য কোনো দিনে।

এখন আমি বদলে গেছি
ভুলেই থাকি তোমায়,
ইচ্ছে গুলো গেছে ঘুচে
স্মৃতিগুলো কোমায়।

তবু শব্দগুলো মনের মাঝে
এফোঁড় ওফোঁড় করে,
ভাবনা গুলো এদিক সেদিক
জাপটে এসে ধরে।

জোয়ার ভাঁটা ফুলে কাঁটা
কত চড়াই উৎরাই,
স্বপ্নগুলো উড়িয়ে দিলাম
আকাশ পানে তাই!!!

#বেলা ১২.০৫ ,৭/৪/২০১৪

  


কে তুমি রডোডেনড্রন ?
দাঁড়িয়ে বিষণ্ণ পাহাড়ের কোলে.
এক বুক আশা আর শূন্য অহংকারে!
জোয়ালামুখীর তরল আগুন
পাহাড়ের নিভৃত বুক চিরে,
উত্তেজনায় ফুটেছো গাছের ডালে!
দুঃখ তোমার হবে না অসংযত
পাথরে খোদাই ছুরিকাঘাতের মতো…
প্রতিশ্রুতিকে নির্মম পায়ে দলে,
আভিজাত্যের লাল জৌলুসে
আরক্ত প্রণয়িনী,
তুমি পুড়েছো অহর্নিশ…..
তোমারই রঙেতে রঙীন হয়েছে
অভিমানী লোহিত সাগর
তবু তুমি আজও বড়ো একা লালিমা
দুর্নিবার বিরহে উদ্ধত
রঙ্গিনী রডোডেনড্রন……

June 9, 2013 at 12:50pm

  

 

তোর নামের আড়ালে এখনো
কিছু উষ্ণতা রয়ে গেছে বাকি
যা এখনো আমাকে কিছুটা ভাবনা ভাবায়….
হয়তো বা পোড়ায়….
যেদিন শীতঘুমে যাবে
বিষধর প্রেম…..
বিরূপাক্ষের সাধনায়
পাবে আজন্ম মুক্তি ….
সেদিন কি আর এসে যাবে
শুধু অতলে হারাবে কিছু
তুচ্ছ অভিমান
খোয়া যাবে নেহাতই
এক মুঠো কথা….
নেহাত ই এক চিমটে
ভালোবাসা …..

  

 

ছায়ার সাথে যুদ্ধ করে

কাটে আমার দিন!

হাভে ভাবে জলপরী ,

আমি এমনি অবার্চীন !

স্বপ্নে বানাই অট্টালিকা

তার অনেক উঁচু সিঁড়ি…

আলোর রাস্তা ভুলে আমি

অন্ধকারে ফিরি…..

সবাই আমায় ভাবে ভুল

তাই ভুলকে করি ভয়

শূন্য থেকে শূন্যে মিলি

কেন যে এমন হয়….?

যোগের খাতায় বিয়োগ করি

অঙ্কে বড়োই কাঁচা,

ভাবের ঘরে চুরি করে

এ, কেমনতর বাঁচা!!!

 

  

বিরহের অজুহাতে আজ তুই

হয়ে আছিস এক মেঘলা আকাশ,

তোর ভুলে ভরা জীবনের পাতা উল্টে

পাল্টে ফেলতেই পারিস আসন্ন সময়।

তুলির টানে রঙিন হয়ে উঠবে ক্যানভাস,

বিস্মৃতির অতলে চাপা পড়ে থাকবে

স্মৃতির মাদুরে রাখা কিছু আদুরে কোলাজ…

চাইলে তুইও হতে পারিস বৃষ্টি ফোঁটা

একরাশ মনখারাপকে দূরে সরিয়ে

এলোমেলো দুপুরের হাত ধরে….

মরা নদীর খরা বাঁকে দুকূল ছাপিয়ে

ভুল করে বয়ে আনতেই পারিস…..

উপচানো প্লাবন…..আরও একবার!!!

তোর সেই ভুল তুলে রাখব আমি সযত্নে

কালো কফিনে ঢাকা মমির মতো

ইচ্ছের পায়ে বেড়ি দিয়ে গড়ব পিরামিড 

মনের অতলে শুয়ে থাকবে ভালোবাসা।

জেনেশুনে কেউ ভুল করে না ,

পারলে তৈরি হতো একটা ভুলে ভরা ইতিহাস

যার একটা শুরু অবশ্যই থাকে

কিন্তু শেষে দাঁড়ি টানার অবকাশ থাকে না॥

  

মস্তিষ্কের জাইগাস সাইকাসে আজ কি এক আজব যন্ত্রণার আনাগোনা !
তবু ইথার গুঁড়োর রহস্যটা এখনও বুঝি সারবারে ডাউনলোড হল না,
দায়বদ্ধতার করাল নাগপাশে লটকে রয়েছে আগামীর চিরসম্ভাষণ
কিন্তু অক্সিজেনের আশায় আর ছটফটাচ্ছে না প্রাণহীন নিথর উছ্বাসটা


কালের যাত্রাপথে শুধুই এক নিরুদ্দেশ হেঁটে চলা প্রজন্মের নাভিশ্বাস
ক্লোরোফিলের গিমিক আজও হাঁতড়ে বেড়াচ্ছে একমুঠো বিষাক্ত বায়ু
মনের মধ্যে একটাই শ্লাঘার নিরন্তর খননকার্য চলেছে দুর্নিবার
করোটির খাঁচায় এ কেমন মন ও মাথার পৈশাচিক অট্টহাস্যের উল্লাস?

 

দিশাহীন জীবনে আজ শুধুই অপরিসীম কেরামতির এক আত্মচরিত
যেন সুনিপুন শব্দে গড়া মনভোলানো ইনবক্সের ইতিকথা….
যেন রিখটার স্কেলে মাপা অতীত বর্তমান আর ভবিষ্যতের
তালগোল পাকানো নোটিফিকেশানের স্ট্যাটাস আপডেট !!!

  

 

তোমায় একটা সরল
সত্য জানিয়ে যাই…..
ভালোবাসা নারীময় নদীময়
কিন্তু সেই নদীময় ভালোবাসাই
কাল বদলাতে পারে তার রূপ ,
হতে পারে কালনাগিনী !
তবু বলে যাই বর্ষ শেষের
শেষ বেলায়….
এখন আমি আর নই
অস্থির বিষুবরেখা
তোমার প্রতীক্ষায় প্রতীক্ষায়
জানালার ঘষাকাচে ,
ঝাপসা অবয়বে ,
খুঁজে ফিরি না তোমায়
ভৈরবের জটাজালে
আষ্টে পৃষ্ঠে বাঁধা পড়ে থাকা
কালো স্বপ্ন গুলোকে
আজ প্রজাপতির মতো
উড়িয়ে দিলাম ….
আর বললাম….
তুমি স্মৃতি ,তুমি সততই সুখের
থাক তুমি আমার
পুরোনো খাতার পাতায়
বন্দী হয়ে…..
আমি চললাম
নতুন দেশ দেখতে ।

 

  

 

চুরি হয়ে গেছে অগোচরে,
আমার মনের ভিতরে রাখা-
কারুকার্যময় মৃগনাভির কৌটোটি ।
যৎসামান্য সুখের অবসরও
চুরি যাচ্ছে অজানা অন্ধকারে…..
শীতলপাটী বিছানো শান্ত মনে,
ঘুণপোকারা বানিয়েছে কি
পেল্লাই পরিপাটী সংসার?
দুঃসময় চারিদিক থেকে,
জালে জড়িয়েছে আমাকে!
স্বপ্নের অর্ধেকটা জুড়ে তুই….
বাকিটা তো নিরাশ লাজুক সময়॥

আকাশের মত চওড়া তোর বুকে,
জমাট একটা আশ্বাস….
স্থির একটা বিশ্বাস……
সমুদ্রমন্থনে যতই উঠুক বিষ-
ভাবি , তোর কাছেই থেকে যাব ।
বাকিটা তো স্বপ্নের ভাঙাগড়া….
কখনো ভাবিনি দাঁতে কামড়ানো
আধ খাওয়া চাঁদটারও এমন
সর্বহারার দশা হবে যে –
চড়কা কাটা শিকেয় তুলে,
হয়ে উঠবে বাউন্ডুলে ভবঘুরে..

 

  

থমকে গেছে বৃষ্টি ফোঁটা
থমকে আছে শহর
জীবনতরীর দুর্বিপাকে
বাড়ছে দুখের বহর।

পুড়ছে দেখ পাগল মন
পুড়ছে আকাশ ওই
পানকৌড়ি ডুব ভুলেছে
বৃষ্টি নামছে কই?

ছায়া ছায়া মেঘের খেয়াল
সুয়োরাণীর ছলে ….
বুড়ি গঙ্গা ভাসবে কখন
দুয়োরাণীর জলে ?

মেঘের ফাঁকে রোদের উঁকি
বৃষ্টি দিল ফাঁকি
কবিতা আমার পথ ভুলেছে
আমি বসেই থাকি!

জমছে এবার মান অভিমান
জমছে মেঘের হাট
বৃষ্টি এসে ভিজিয়ে যাবে
খোলা দুয়ার কপাট!

ভাঙছে আমার মনের বাঁধন
ভাঙছে মনের ঢেউ ,
মেঘের ঘরে জল থৈ থৈ
খুঁজছে আমায় কেউ!

কালো হচ্ছে ভীষণ আলো
সূর্য বুঝি টিমটিম
চাতক মনটা দিচ্ছে পাড়ি
বর্ষা আসছে রিমঝিম!!

ফোঁটায় ফোঁটায় আবেগ যেন
পড়বে গলে গলে
শব্দ বন্যা বইবে এবার
ঐ বৃষ্টি এল বলে!!!!!

 

  
PAGE TOP
HTML Snippets Powered By : XYZScripts.com
Copy Protected by Chetans WP-Copyprotect.